মিথ্যা অভিযোগে গ্রেফতারের ২৫ বছর পর নির্দোষ প্রমাণিত

img

নুরবিডি ডেস্ক:  সন্ত্রাসী গ্রূপে যুক্ত থাকার অভিযোগে ২৫বছর আগে যাদের গ্রেফতার  করা হয়েছিল, জীবনের সবচেয়ে মূল্যবান ২৫টি বছর পার হওয়ার পর নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছেন ১১ শিক্ষিত মুসলিম যুবক। ২৭শে ফেব্রুয়ারী ১১জন মুসলিমকে নাসিকের টাডা আদালত ২৫ বছর পর মুক্ত করেছে।১৯৯৪ সালে সন্ত্রাসী ও বিধ্বংসী ক্রিয়াকলাপ (প্রতিরোধ)(TADA) আইনের আওতায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয় এবং গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। জাস্টিস এসসি খাতি প্রমাণের অভাব এবং টাদা গাইডলাইন লঙ্ঘনের কারণে তাদের নির্দোষ বলে মুক্ত করার নির্দেশ দেই।

বাবরি মসজিদ ধ্বংসের প্রতিশোধ নেওয়ার পরিকল্পনা করে এবং ভুসাওয়াল আল জিহাদ নামক সন্ত্রাসী গ্রুপে তরুণদের নিয়োগের চেষ্টা করেছিল বলে মিথ্যা অভিযোগে মহারাষ্ট্র ও ভারতের অন্যান্য রাজ্যের ১১ জন মুসলিম তরুণকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। ১১ জন শিক্ষিত যুবক ছিলেন,এদের মধ্যে ডাক্তার,ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারও ছিল, যাদের জীবন তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত সংস্থার অভিযোগের কারনে নষ্ট হয়ে গেছে। জমিয়তে উলেমা হিন্দের আইনজীবীরা তাদের মুক্তির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিল।

জমিয়ত উলেমা হিন্দের আইনী সেলের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গুলশার আজমি টুসারকেল.নেট -কে বলেন, “ন্যায়বিচার পাওয়া গিয়েছে।কিন্তু এই পুরুষরা বহুমূল্য মূল্যবান জীবন হারিয়েছে। এর জন্য কে দায়ী? এই জন্য সরকার কি তাদের ক্ষতি এবং তাদের মর্যাদা ফেরত দিতে ? এই পুরুষদের পরিবারের অনেক ক্ষতি হয়েছে, তাদের মধ্যে পরিবারের কিছু সদস্য মারা গেছে।

www.tdnbangla.com